বৃষ্টিতে ফাইনাল পরিত্যক্ত হলে চ্যাম্পিয়ন নির্ধারণ হবে যেভাবে

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল আজ। যেখানে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান ও ইংল্যান্ড। মেলবোনে এই ম্যাচকে ঘিরে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বেশ। আবহাওয়াবিদরা স্পষ্ট করেই বলছেন বৃষ্টির কারণে সর্বনাশ হয়ে যেতে পারে ফাইনালের! যদি তাই হয় তাহলে কি হবে?

ফাইনালের জন্য অবশ্যই রিজার্ভ ডে রাখা হয়েছে। রিজার্ভ ডেতেও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া অফিস। যদি বৃষ্টির কারণে ফাইনাল ম্যাচটি মাঠে না গড়ায়, তবে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হবে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তান।

এক বিবৃতিতে শুক্রবার ব্যুরো অব মেটিওরোলজি জানায়, রোববার ১৫ থেকে ২৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতের সঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে ৯৫ শতাংশ। প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা প্রায় ১০০ শতাংশ। বজ্রঝড়ের সঙ্গে ভারি বৃষ্টিপাতেরও সম্ভাবনা রয়েছে। সোমবার রিজার্ভ ডে রাখা হয়েছে। ওই দিনও ৫ থেকে ১০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাতের সঙ্গে ৯৫ শতাংশ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

টুর্নামেন্টে প্লেয়িং কন্ডিশন অনুযায়ী নকআউট পর্বে দুই দলের প্রতি ইনিংসে ১০ ওভার করে খেলা হলেই সেটিকে ম্যাচ হিসেবে ধরা হবে, যা গ্রুপপর্বে পাঁচ ওভার করে নির্ধারিত ছিল। ফাইনালে ওভার কমিয়ে হলেও ম্যাচ শেষ করার অগ্রাধিকার থাকবে। রোববার খেলা শুরু হলে এবং শেষ করতে না পারলে রিজার্ভ ডেতে গড়াবে। এ ক্ষেত্রে আগের দিন যেখানে শেষ হয়েছিল রিজার্ভ ডেতে, সেখান থেকে খেলা শুরু হবে। একবার টস হয়ে গেলে ফাইনাল শুরু হিসেবে বিবেচিত হবে।

রোববার খেলা শুরু হওয়ার পর যদি বৃষ্টির কারণে পরবর্তী সময় খেলা না হয়, রিজার্ভ ডেতে ম্যাচটি ২০ ওভার করেই হবে। ফাইনালের মূল দিনে ৩০ মিনিট অতিরিক্ত সময় বরাদ্দ থাকে। রিজার্ভ ডেতে খেলা হলে অতিরিক্ত দুই ঘণ্টা থাকবে। সোমবার স্থানীয় সময় বিকেল ৩টায় শুরু হবে খেলা। দুই দিন মিলিয়েও যদি ম্যাচের ফল না হয়। তাহলে ট্রফি ভাগাভাগি করতে হবে দুই দলকে।

২০০২-০৩ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত ও শ্রীলঙ্কা। সে আসরে প্লেয়িং কন্ডিশন অনুযায়ী রিজার্ভ ডেতেও খেলা হওয়ার পর ফলাফল হয়নি। ২০১৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপে ভারত-নিউজিল্যান্ডের সেমিফাইনাল দুই দিনে শেষ হয়েছিল।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*