নিউজিল্যান্ডে একজন করোনাক্রান্ত হওয়ায় পুরো দেশে লকডাউন ঘোষণা

পুরো দেশজুড়ে মাত্র একজনের শরীরে পাওয়া গেছে প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাসের উপস্থিতি, আর তাতেই নিউজিল্যান্ডজুড়ে দেয়া হয়েছে কঠোর লকডাউন। ছয় মাসের মধ্যে এই প্রথম সেখানে একজন আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। দেশটির স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা ধারণা করছেন, ওই ব্যক্তি করোনার ডেল্টা ধরনে আক্রান্ত হয়েছেন।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন ‘লেভেল ফোর’ মাত্রার বিধি-নিষেধ ঘোষণা করেছেন। এর আওতায় স্কুল, অফিস ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। আক্রান্ত ব্যক্তি অকল্যান্ডে শনাক্ত হওয়ায় সেখানে জারি করা হয়েছে সাত দিনের লকডাউন। আর ওই ব্যক্তি সম্প্রতি করোম্যানডল ভ্রমণ করায় সেখানেও একই বিধি-নিষেধ এসেছে। দেশটির বাকি অংশে জারি করা হয়েছে তিন দিনের লকডাউন।

মহামারি করোনার ধাক্কা সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে সারা বিশ্ব। করোনার নতুন নতুন ভ্যারিয়েন্টের কাছে বিশ্বের ক্ষমতাধর রাষ্ট্রগুলোও ধরাশায়ী। পৃথিবীজুড়ে টিকা কার্যক্রম চললেও থামছে না সংক্রমণ ও মৃত্যুহার। টানা চার দিনের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে আজ বুধবার (১৮ আগস্ট) বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ সময় বুধবার (১৮ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় মারা গেছেন আরও ৯ হাজার ৯০৭ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৪৫ হাজার ৪৯৮ জন।

যা গতকাল মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) মারা যান আরও ৭ হাজার ৬১১ জন এবং আক্রান্ত হন ৫ লাখ ২০ হাজার ৪০৫ জন। সোমবার (১৬ আগস্ট) মারা যান আরও ৮ হাজার ৯৫ জন এবং আক্রান্ত হন ৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮৮৬ জন। আর রোববার (১৫ আগস্ট) মারা যান ৮ হাজার ৬৫০ জন এবং আক্রান্ত হন ৫ লাখ ৪৬ হাজার ২২ জন। চার দিনের হিসেবে আজ বুধবার বিশ্বে করোনায় মৃত্যু বেড়েছে।

এ নিয়ে বিশ্বে এখন পর্যন্ত মোট করোনায় মৃত্যু হলো ৪৩ লাখ ৯৪ হাজার ৩৫৬ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন ২০ কোটি ৯৩ লাখ ৫৪ হাজার ৫১৫ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৮ কোটি ৭৬ লাখ ২৬ হাজার ৪৯০ জন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*